বাঁশখালীতে মাদ্রাসার ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ

0
ফাইল ছবি

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার গণ্ডামারা ইউনিয়নের পূর্ব বড়ঘোনা এলাকায় ৮ম শ্রেণির এক মাদরাসা ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মহিলা মেম্বারের ছেলে কামরুল ইসলাম জুনাইদের বিরুদ্ধে।

ছাত্রীটির পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জোনাইদ বিভিন্ন সময়ে মেয়েটিকে কৌশলে ধর্ষণ করে।

বিষয়টি একাধিকবার জোনাইদের পরিবারকে জানানো হলে তারা কোন বিচার না করে উল্টো মেয়ে পক্ষকে বিভিন্ন প্রকারের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে।

বাঁশখালী থানার ওসি সালাহউদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত আছি। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাওয়া হলে অভিযুক্ত বদিউজ্জামানের মা মহিলা ইউপি সদস্য কহিনুর আক্তার বলেন, এটা আমার ছেলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়া কিছুই নয়।

গণ্ডামারা ইউপির (ভারপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান মো. আলী হায়দার চৌধুরী আসিফ জানান, বিষয়টি মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে আমাকে অবহিত করা হয়েছে। তাদেরকে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করার পরামর্শ দিয়েছি।

জানা যায়, একই এলাকার নজরুল ইসলাম ও গণ্ডামারা ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য কহিনুর আক্তারের পুত্র কামরুল ইসলাম জোনাইদ (২০) প্রেমের ফাঁদে ফেলে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here