মীরসরাইয়ে ঈদ সালামি না পাওয়ায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে কিশোরীর আত্মহত্যা!

0

মীরসারাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:
মিরসরাইয়ে বাবা ঈদের সালামি না দেয়ায় অভিমান করেছেন ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মাহত্যা করেছে মাইমুনা আক্তার নামে (১৫) এক কিশোরী। বুধবার (২৭ মে) দুপুরে উপজেলার ১৫ নং ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ ওয়াহেদপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। নিহম মাইমুনা রাজশাহী শহরের আমচত্বর এলাকার ছালাফিয়া মহিলার মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী। সে মীরসরাই উপজেলার মিঠাছড়া এলাকার ধনকাজী ভূঁইয়া বাড়ির মোঃ মহিউদ্দিনের মেয়ে।

নিহত মাইমুনার মামা মোঃ সাইদুল ইসলাম সাইদি জানান, বুধবার সকালে তার বাবা ছোট দুই ভাই বোনকে ঈদ সালামি দেয় ২০০ টাকা। মায়ের কাছে জানতে চায় তার জন্য দিয়েছে কিনা? তার জন্য ঈদ সালামি দেইনাই শুনে ঘরের ভেতর গিয়ে দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। পরে ঘরের দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে তার ঝুলন্ত লাশ দেখা যায়। পুলিশে খবর দিলে তারা লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেছে। সাইদি আরো জানান, মাইমুনাদের বাড়ি মিঠাছড়ায় হলেও তার বাবার ব্যবসার সুবাধে তারা রাজশাহীতে থাকতো। কয়েক মাস পূর্বে ব্যবসার অবস্থা খুব ভালো না হওয়ায় তারা নানার বাড়িতে চলে আসে।এ

এ বিষয়ে মীরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান পিপিএম প্রেসবিডিকে বলেন, এক কিশোরীর আত্মহত্যার খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরিবার বলছে ঈদ সালামি না পাওয়ায় সে আ‏ত্মহত্যা করেছে। তবে আত্মহত্যা কিনা আমরা নিশ্চিত নই। লাশের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট আসার পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। লাশের ময়নাতন্তের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here