মীরসরাইয়ে আরো ৫ জনের করোনা পজিটিভ

0

শফিক,প্রেসবিডি,মীরসরাই: চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পাঠানো নমূনা পরীক্ষার ফলাফলে একসাথে চার জনের শরীরে নতুন করে করোনা ভাইরাস (কোভিড- ১৯) ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া, ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হওয়া অপর একজনের বিষয়ে (বিআইটিআইডিতে নিজে নমূনা প্রদান করা ব্যাক্তি) দূর্গাপুর ঠিকানা ব্যবহার করলেও নিশ্চিত হওয়া যায়নি তিনি মীরসরাইয়ের বাসিন্দা কিনা। তবে, দূর্গাপুরে এই রোগীসহ উপজেলায় একদিনে সর্বোচ্চ ৫ জনের শরীরে নতুন করে করোনা ‘পজিটিভ’ শনাক্তের খবর পাওয়া যায়। সোমবার (১ জুন) রাত ১.০০ টায় চট্টগ্রাম ফৌজদারহাটস্থ বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) হাসপাতালের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি।

মীরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক কর্মকর্তা ডা. মিজানুর প্রেসবিডিকে জানান, শনাক্ত হওয়া রোগীদের গত ২৭ মে নমূনা সংগ্রহ করা হয়। পরবর্তীতে রিপোর্টের জন্য বিআইটিআইডিতে পাঠানো হলে আজ (১ জুন) তাদের রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হয়ে আসে।

তিনি আরো জানান, আক্রান্তদের মাঝে একজন মহিলা যার বয়স ৬৫ বছর, আর তিনজন পজিটিভ হওয়া পুরুষদের মধ্যে বয়স যথাক্রমে ৩৩, ৭০, এবং ৩২ বছর। তারা সকলেই উপজেলার ১৩ নং মায়ানী ইউনিয়নের, পশ্চিম মায়ানী এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে। তবে অপর একজন রোগী বিআইটিআইডিতে নিজে নমূনা দিয়ে তার ঠিকানায় শুধুমাত্র দূর্গাপুর ব্যবহার করায় তিনি মীরসরাইয়ের ৮ নং দূর্গাপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা কিনা এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত তার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে তিনি ৭৫ বছর বয়সের একজন বৃদ্ধ এবং পুুরুষ বলে জানা যায়।

তবে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সচেতন হলে সুস্থ্য হওয়ার খবরও আশার সঞ্চার জাগিয়েছে। আজকের রিপোর্টে মীরসরাইয়ের একজন রোগী পূর্বে ২বার পজিটিভ শনাক্ত হলেও আজ তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তাই বলা যায়, নিয়ম মানলে ভয়ের কিছু নেই। কারণ, এই ধরনের রোগী পরিস্থিতির স্বীকার। নিয়মিত স্বাস্থ্য বিধি মেনে চললে সুস্থ্য হয়ে যাবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা। ভয় শুধু এইটুকুই এইসব রোগীর সংস্পর্শে আসাদেরও সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি থাকে। যদি বয়স্ক নারী অথবা পুরুষ আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসে তাহলে তাদের ঝুঁকির পরিমান আরো বেড়ে যায় বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

মীরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মজিবুর রহমান পিপিএম প্রেসবিডিকে  জানান, আমার কাছে মীরসরাইয়ের কয়েকজন করোনা “পজিটিভ” রোগীর তথ্য এসেছে। গভীর রাত হওয়ায় রোগীদের বাড়ি এখনই লকডাউন করা হচ্ছেনা। কাল সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক কর্মকর্তার সমন্বয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, এনিয়ে আজকের ৫ জনসহ মীরসরাইয়ের বাসিন্দা ২০ জনের দেহে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের তথ্য পাওয়া যায়। এরমধ্যে দুই জন মৃত্যুবরণ করে। দুইজনই মীরসরাইয়ের বাহিরে- একজন ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে অপরজন চট্টগ্রামের ম্যাক্স হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here